ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • বুধবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৭ ১৪২৭

  • || ০৫ সফর ১৪৪২

আজকের ময়মনসিংহ
৮২

১০ লাখ মানুষ যাবে মঙ্গল গ্রহে!

আজকের ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২০  

২০৫০ সালের মধ্যে ১০ লাখ মানুষকে মঙ্গল গ্রহে পাঠানোর পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন স্পেস এক্সের সিইও ইলন মাস্ক।বেশ কিছু টুইট বার্তায় এ কথা জানান ইলন মাস্ক। 

টুইটে মাস্ক জানান, আগামী ১০ বছরে তিনি ১ হাজার স্টারশিপ রকেট তৈরি করতে চান। পুনরায় ব্যবহারযোগ্য এ রকেটগুলো বানানো হবে সাউথ টেক্সাসে। দিনে ৩টি করে ফ্লাইট পরিচালনা করা যাবে এমন স্টারশিপ তৈরি করাই তাদের লক্ষ্য।

তিনি আরও জানান, সবাই যাতে মঙ্গলে ভ্রমণ করতে পারেন সেটাও নিশ্চিত করতে চান। চাইলে যে কেউ মঙ্গলে যেতে পারবে। টাকা না থাকলে ঋণও দেওয়া হবে। মঙ্গলে অনেক চাকরির বাজারও তৈরি হবে। 
ইলন মাস্কের পরিকল্পনা অনুযায়ী, প্রতিটি স্টারশিপে ১০০ টনের বেশি পণ্য ও ১০০ মানুষ কক্ষপথে পাঠানো সম্ভব হবে। কী কী পাঠানো হবে তা ইলন মাস্ক উল্লেখ না করলেও ধারণা করা হচ্ছে, খাবার, পানি, বিল্ডিং তৈরির সরঞ্জাম, যন্ত্রপাতি ও টিউব (অ্যাডভান্সড লাইফ সাপোর্ট সিস্টেম) নিয়ে যাওয়ার কাজ করবে স্টারশিপগুলো।

ইলন মাস্কের মতে, গ্রহ থেকে গ্রহ ভ্রমণে প্রতি বছর কক্ষপথে কয়েক মেগাটনের পণ্য  বহন করা জরুরি। প্রতি বছর মঙ্গলে ১০০ মেগাটনের পণ্য ও ১০০ মানুষ বহন করবে ১ হাজার স্টারশিপ। এভাবে ১০ বছরে ১০ লাখ মানুষ মঙ্গলে পৌঁছাতে পারবে।প্রতি ২৬ মাস পর পর পৃথিবী ও মঙ্গলগ্রহ কাছাকাছি আসে। এ সময় জ্বালানি খরচ বাঁচাতে ৩০ দিনে ১ হাজার স্টারশিপ মঙ্গলে পাঠানো হবে। 

এর আগে তিনি জানান, ১ হাজার স্টারশিপ ১ বছরের মধ্যে পাঠানোর কথা বললেও ২৬ মাসে একই পরিমাণ স্টারশিপ মঙ্গলে পাঠানো হবে। যাই হোক, ১ বছর বা ২৬ মাসের মধ্যে ১ হাজার স্টারশিপ পাঠানোর সক্ষমতা অর্জন করতে স্পেস এক্সের আরও বহু বছর সময় লাগবে।

লাল গ্রহটিতে স্বনির্ভর বসতি স্থাপনে খরচ ১০০ বিলিয়ন থেকে ১০ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্যে থাকবে বলে ধারণা প্রকাশ করেছেন মাস্ক।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর