ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • শুক্রবার   ০৭ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৩ ১৪২৭

  • || ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
৭৮

শেরপুরে গোপন বৈঠককালে ১৭ শিবির কর্মী গ্রেফতার

আজকের ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

শেরপুরে নাশকতার উদ্দেশ্যে গোপন বৈঠককালে ১৭ শিবির কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। ১০ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ভোররাতে পৌর শহরের দিঘারপাড় এলাকার বলবল বাজারের একটি পরিত্যক্ত গোডাউন থেকে তাদের আটক করা হয়। ওইসময় তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ জিহাদি বই, লিফলেট ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।
গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে নালিতাবাড়ী উপজেলার নিজপাড়া গ্রামের সামছুজ্জামানের ছেলে আশিক বিল্লাহ (১৮), কিল্লাপাড়া গ্রামের আব্দুল মোতালেবের ছেলে জাহিদ হাসান (১৮), ছিটপাড়া গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে মোজাহিদুল ইসলাম (১৯), ভায়াডাঙ্গা বানিয়াপাড়া গ্রামের হাবিবুল্লাহর ছেলে আবু সামা কবির (২০), বাগিছাপুর গ্রামের ইসমাইলের ছেলে আলমগীর (১৯), রাজনগর গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে ওসেক বিল্লাহ (১৮), শ্রীবরদী উপজেলার পোড়াগড় গ্রামের বাচ্চা গেল্লার ছেলে ওবায়দুল ইসলাম (১৮), আব্দুস সামাদের ছেলে কামাল মিয়া (২২), বড়পোড়াগড় গ্রামের সবুর উদ্দিনের ছেলে রুহুল আমিন (১৬), জলংগাপাড়া গ্রামের মোঃ মামুনের ছেলে বেলায়েত হোসেন (১৮) ও বায়জিদ হোসেন (১৬), আব্দুল খালেকের ছেলে মোঃ নুরনবী (১৬), সাতানি মথুরাদি গ্রামের আমির আমজার ছেলে মোজাহিদুল ইসলাম জাহিদ (১৬), তাতিহাটি গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে মামুন মিয়া (১৭), সাইদুল ইসলামের ছেলে আরাফাত (১৫), তিনানী ভেলুয়া গ্রামের আবু আহাম্মদের ছেলে মাহাদি হাসান (১৮) ও খামারিপাড়া গ্রামের আবুল বারেকের ছেলে সুন্দর আলী (১৬)। এরা সকলেই বিভিন্ন মাদ্রাসা ও কলেজের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, শেরপুর শহরের দিঘারপাড় এলাকার বলবল বাজারে নাশকতার উদ্দেশ্যে শিবির কর্মীরা গোপন বৈঠক করছে- এমন সংবাদের ভিত্তিতে রাত পৌণে ২টা থেকে ভোর ৪টা পর্যন্ত অভিযান চালানো হয়। এসময় স্থানীয় ইসমাইল হোসেন হরফ আলীর পরিত্যক্ত গোডাউন থেকে বৈঠকরত অবস্থায় ১৭ জন শিবির কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়। সেইসাথে ঘটনাস্থল থেকে প্রচুর পরিমাণ জিহাদি বই, লিফলেট, দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র ও লাঠিসোটা উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে। শেরপুরের পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর