ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’

বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৯ ১৪২৬   ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
৪৪

ময়মনসিংহ সিটি মেয়রের সঙ্গে মেঘালয় মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯ নভেম্বর ২০১৯  

ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট ও শেরপুরের নাকুগাঁও স্থলবন্দর ব্যবহার বাড়ানো গেলে বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশই উপকৃত হবে। সেই সাথে দুই দেশের ব্যবসায়ীদের সম্পর্কও উন্নত হবে।

গতকাল শুক্রবার (৮ নভেম্বর) বিকালে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটুর সঙ্গে এক দ্বিপাক্ষীয় স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বৈঠকে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড কঙ্কাল সাংমা এসব কথা বলেন।

পণ্য আমদানি-রফতানি বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়েছেন ভারতের মেঘালয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড কঙ্কাল সাংমা আরো বলেন ‘দুই স্থলবন্দরের ব্যবহার বাড়াতে হবে। এ দুই স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বাড়ানোর মাধ্যমে দুই দেশের ব্যবসায়ীদের সম্পর্কও উন্নত হবে। 

এ সময় ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু শেরপুরের নাকুগাঁও এবং হালুয়াঘাট স্থলবন্দর দিয়ে আসা কয়লা ও পাথর আমদানির ক্ষেত্রে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের নানা হয়রানির কথা তুলে ধরেন। তিনি এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেন।

এ ছাড়া পুরনো ব্রহ্মপুত্র নদ ড্রেজিং কাজ শুরু হওয়ায় জলপথে দুই দেশের ব্যবসা বাড়ানোরও প্রস্তাব দেন মেয়র টিটু।

পরে সিটি করপোরেশন মিলনায়তনে ময়মনসিংহের রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দসহ বিশিষ্টজনদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় অংশ নেন মুখ্যমন্ত্রী কনরাড কঙ্কাল সাংমা। এ সময় মেঘালয় রাজ্যের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে হালুয়াঘাট স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী। ময়মনসিংহ ও হালুয়াঘাট এলাকা ঘুরে দেখতে তিনি ব্যক্তিগত সফরে আসেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

আজকের ময়মনসিংহ
আজকের ময়মনসিংহ
এই বিভাগের আরো খবর