ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • বৃহস্পতিবার   ০৪ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২১ ১৪২৭

  • || ১২ শাওয়াল ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
২১৭

ময়মনসিংহে পৃথকস্থানে একদিনে দুই কিশোরী ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

আজকের ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ময়মনসিংহের নান্দাইলে পৃথকস্থানে একদিনে দুই কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা হলে পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করতে পেরেছে। 

মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) নান্দাইল উপজেলার বীর বেতাগৈর ইউনিয়নের চরশ্রীরামপুর গ্রামে স্কুলছাত্রীকে বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণ করে এক যুবক এবং একইদিনে জাহাঙ্গীরপুর ইউনিয়নের বরিল্যা গ্রামে অপর এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ দুই ভুক্তভোগীকে আলাদাভাবে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নান্দাইল উপজেলার বীর বেতাগৈর ইউনিয়নের চরশ্রীরামপুর গ্রামে নানার বাড়িতে থেকে স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ওই ছাত্রী (১৪) লেখাপড়া করে। পার্শ্ববর্তী চৈতনখালী গ্রামের নবী হোসেনের ছেলে সোহরাব উদ্দিন (২৪) মঙ্গলবার দুপুরের দিকে চরশ্রীরামপুর গ্রামে নানার বাড়িতে স্কুলছাত্রীকে একা পেয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। পরে ওই স্কুল ছাত্রীর মা হালিমা আক্তার বাদী হয়ে নান্দাইল মডেল থানায় এ ব্যাপারে একটি মামরা দায়ের করে। পরে পুলিশ অভিযুক্ত সোহরাব উদ্দিনকে গ্রেফতার করে বুধবার ময়মনসিংহ জেল-হাজতে প্রেরণ করে।

অপরদিকে নান্দাইল উপজেলার জাহাঙ্গীরপুর ইউনিয়নের বরিল্যা গ্রামের এক কিশোরীকে (১৫) একই গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে হীরা মিয়া (২৫) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক সম্পর্ক করায় মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। ফের মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) মেয়েটিকে বিয়ের কথা বলে ধর্ষণ করে চলে আসার সময় ওই কিশোরী কান্নাকাটি শুরু করলে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়ে যায়। 

পরে ওই কিশোরীর ভাই রুহুল আমিন বাদী হয়ে নান্দাইল মডেল থানায় ধর্ষণের অভিযুক্ত হীরা মিয়াকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত হীরা মিয়া পলাতক রয়েছে।

নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনসুর আহম্মেদ জানান, এ দুটি ধর্ষণের ঘটনায় পৃথকভাবে নিয়মিত মামলা হয়েছে। কিশোরীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য মমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে আসামি গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

ময়মনসিংহ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর