ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • সোমবার   ০১ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭

  • || ০৯ শাওয়াল ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
১৪৩

বুলবুলের প্রভাবে সাতক্ষীরায় বইছে ঝড়ো হাওয়া

আজকের ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ৯ নভেম্বর ২০১৯  

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এর প্রভাবে সাতক্ষীরায় শুক্রবার ও শনিবার ভোর থেকে বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়া বইতে শুরু করেছে। শুক্রবার সকাল থেকে এখন পর্যন্ত দেখা মেলেনি সূর্যের।

এরমধ্যে সাতক্ষীরার উপকূলীয় অঞ্চল শ্যামনগর উপজেলায় এর প্রভাব বেশি দেখা দিয়েছে। সুন্দরবন বেষ্টিত এই উপজেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের সঙ্গে বাইছে দমকা হাওয়া। স্থানীয়রা ঘর-বাড়ি ছেড়ে চলে যাচ্ছে আশ্রয়ণ প্রকল্পে। 

এদিকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১০ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। জেলায় স্কুল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করে নিজ নিজ এলাকায় অবস্থান করতে বলা হয়েছে। হাসপাতাল ও কমিউনিটি ক্লিনিক সার্বক্ষণিক খোলা রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। উপকূলীয় এলাকার মানুষদের সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

সাতক্ষীরা ডিসি এস এম মোস্তফা কামাল জানান, বুলবুল মোকাবিলায় সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এরমধ্যে দুর্গত এলাকার মানুষের জন্য টাকা, চাল ও শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সার্বক্ষণিক খোঁজ খবর নেয়ার জন্য জেলা ও উপজেলা প্রসাশন থেকে মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। দুর্যোগে ক্ষয়ক্ষতি কমাতে ও মানুষের জানমালের নিরাপত্তায় জেলার ২৭০টি আশ্রয় কেন্দ্র খুলে দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও ১২শ’ স্কুল-কলেজ বিকল্প আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত রাখা রয়েছে। একই সঙ্গে প্রত্যেক ইউপি মেডিকেল টিম প্রস্তুত, পর্যাপ্ত খাবার ও পানি মজুদ, দুর্যোগকালীন ও দুর্যোগ পরবর্তী সময়ে উদ্ধার কার্যক্রম চালানোর জন্য ফায়ার সার্ভিস, অ্যাম্বুলেন্স ও স্বেচ্ছছাসেবক প্রস্তুত রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর