ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • মঙ্গলবার   ০২ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭

  • || ১০ শাওয়াল ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
১৬০৭

বাংলাদেশে মোদির আগমণ বিশ্ব রাজনীতির অংশ

আজকের ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ৬ মার্চ ২০২০  

বাংলাদেশে মুজিব দিবসে সফরে আসছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মুক্তিযোদ্ধে আমাদের বন্ধু দেশ ভারতের প্রধানমন্ত্রীর আগমণে দেশবাসী আনন্দিত। কিন্তু এ বিষয় নিয়ে অপরাজনীতি শুরু করেছে বিএনপি-জামায়াতের মতো কুজক্রীরা।

মুজিব বর্ষের মতো তাৎপর্যপূর্ণ একটি অনুষ্ঠানে বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্রের সরকার প্রধানের সফর নিয়ে ধর্মীয় আবেগের ধোঁয়াশা সৃষ্টি করা অযৌক্তিক। উক্ত সফর বাতিলের দাবিতে বিভিন্ন ইসলামী দলসহ জামাত-বিএনপি চক্র জনমনে ধর্মীয় বিদ্বেষ ও ভারত বিরোধী মনোভাব সৃষ্টির অপপ্রয়াস চালাচ্ছে। জামাত-বিএনপি তাদের শাসনামলে কিন্তু ভারত বিদ্বেষ বা ভারতের বিষয়ে কোন অভ্যন্তরীণ/বৈদেশিক নীতি গ্রহণ করতে পারেনি। তবে এখন কেন তারা সরকারকে দোষারোপ করছে?
কোন রাষ্ট্র প্রধানের অন্য দেশ সফরের বিষয়টি বহু আগে থেকেই নির্ধারণ করা হয়। দিল্লীর ঘটনার পর তার সফর নির্ধারিত হয়নি। কোন দেশের অভ্যন্তরীণ সমস্যার কারণে সে দেশের প্রধান অন্যদেশ সফর বাতিলের কোন নজির নেই। 

আমরা অসাম্প্রদায়িক জাতি। এদেশের মানুষ খুবই অতিথি পরায়ণ। কোন অতিথিকে দাওয়াত দিয়ে তা আবার বাতিল করা আমাদের ঐতিহ্যের বাইরে। এমতাবস্থায় স্বাধীনতা যুদ্ধে সহায়তাকারী দেশের রাষ্ট্র প্রধানের সফর নিয়ে সরকারকে দোষারোপ করা কতটুকু সমীচীন তা প্রশ্নসাপেক্ষ।


এ দিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়েদুল কাদের বলেন,‘তারা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সময় সহযোগিতা করেছে। এবং ভারতীয় প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণ ছাড়া শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান অসম্পূর্ণ থাকবে। 

এ সফর নির্ধারিত হয় ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ এ।

সূত্রঃ দি কোয়িন্ট

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর