ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • সোমবার   ০১ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭

  • || ০৯ শাওয়াল ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
৬৮

পাঁচ বছর আগেই বার্সা ছাড়তে চেয়েছিলেন মেসি!

আজকের ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ১০ অক্টোবর ২০১৯  

বার্সেলোনায় খেলা কিছু কিছু ফুটবলারকে কিউল বলে ডাকা হয়। এই উপাধি তারাই পান যারা মূল ক্যারিয়ারের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বার্সাতেই খেলে থাকেন। জাভি হার্নান্দেজ, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা প্রমুখ ফুটবলার কিউলের অন্তর্ভূক্ত। কিউল প্রকৃতির মাঝে আছেন লিওনেল মেসিও। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে আছেন, খেলবেন শেষ পর্যন্ত এমনটাই আশা করেন বার্সেলোনা সমর্থকরা। অথচ পাঁচ বছর আগেই কিনা তিনি ছাড়তে চেয়েছিলেন অতি আপন এ ক্লাব। সম্প্রতি স্প্যানিশ গণমাধ্যম এএস কে এ তথ্য জানান বার্সা অধিনায়ক। 

২০১৪ সালে কর ফাঁকির অভিযোগে পড়েছিলেন মেসি। সে সময় তার ও তার বাবার বিরুদ্ধে ৩১ লাখ পাউন্ড কর ফাঁকির অভিযোগ তুলেছিল স্প্যানিশ কর্তৃপক্ষ। শেষ পর্যন্ত উভয়কে দোষী সাব্যস্ত করে রায় দেয় আদালত। এমনকি ২১ মাসের কারা দণ্ডাদেশ দেয়া হয়েছিল মেসিকে। 

এএসকে ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলার বলেন, এরকম তদন্তের কারণে তিনি ভিন্নভাবে ভাবতে শুরু করেছিলেন। মেসি বলেন, অনেকগুলো কারণে তখন কখনো কখনো আমি ক্লান্ত হয়ে পড়তাম। ২০১৩ ও ২০১৪ সালে এমন সময়ও এসেছিল যখন কর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আমার সমস্যা দেখা দিয়েছিল।

মেসি আরো বলেন, এত কিছুর মধ্যেও ভালো দিক ছিল তখন আমার সন্তানদের ছোটো থাকা। তারা কিছুই বুঝতো না। তবে আমাদের খারাপ সময় যাচ্ছিল। সে সময় আমি বার্সা ছেড়ে চলে যেতে চেয়েছিলাম। তবে ক্লাবের সঙ্গে আমার সম্পর্কের কারণে এমন কিছু আর ভাবিনি। 

বার্সেলোনার সঙ্গে ৩২ বছর বয়সি এ খেলোয়াড়ের সম্পর্ক দেখে যেকোনো ক্লাব আফসোস করতে বাধ্য। ইউরোপের অন্য কোনো ক্লাবের জার্সিতে তাকে কল্পনা করাও কঠিন। ২০০৪ সালে এই ক্লাবের সিনিয়র দলে অভিষেকের পর ১০ বার লা লিগা জিতেছেন মেসি। চারবার জিতেছেন উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। মেসি ক্যারিয়ারের পুরো সময় বার্সায় কাটাবেন, এ প্রত্যাশা তার কোটি ভক্তেরও। 

খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর