ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • শনিবার   ৩০ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৬ ১৪২৭

  • || ০৭ শাওয়াল ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
৫৪৪

জাতিসংঘকে সতর্ক করবেন ইমরান

আজকের ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

কাশ্মীর ইস্যুতে ভারত ও পাকিস্তান পারমাণবিক যুদ্ধের মুখে রয়েছে- পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এ বিষয়টিই জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে তুলে ধরবেন। অধিবেশন উপলক্ষে অধিকাংশ বিশ্বনেতৃবৃন্দ এখন নিউইয়র্কে অবস্থান করছেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও অধিবেশনে ভাষণ দেবেন। চলতি অধিবেশনে এ বিষয়টির ওপর অনেকে চোখ রাখছেন।

নিউইয়র্কে সাংবাদিকদের ইমরান বলেন, তারা (কাশ্মীরের জনগণ) রাস্তায় নেমে আসবে। তখন কী হবে? কাশ্মীরে নয় লাখ ভারতীয় বাহিনী নিরাপত্তার কড়াকড়ির দায়িত্বে আছে। আমি শঙ্কিত, যে কোনো সময় সেখানে ধ্বংসযজ্ঞ শুরু হবে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। ইমরান আরও বলেন, জাতিসংঘে বিশ্বনেতাদের এই অধিবেশনে আমার আসার প্রধান কারণ হলো- এই বিষয়ে তাদের অবগত করা। আমরা একটি ধ্বংসযজ্ঞের মুখে রয়েছি অথবা এখানে কেউ তা অনুভব করছে না। কিউবা সংকটের পর এই প্রথম পারমাণবিক ক্ষমতাসম্পন্ন দুই দেশ মুখোমুখি হয়েছে। যদিও ফেব্রুয়ারি মাসেও আমরা এমন সম্মুখ সংকটে পড়েছিলাম। সেই সময় আমার সেনাপ্রধান ও বিমানবাহিনীর প্রধান আমাকে জানালেন, ভারতীয় জঙ্গিবিমান পাকিস্তানের অভ্যন্তরে বোমা নিক্ষেপ করেছে, আমরা এখন কী করব? আমাদের এখন কী করা উচিত সেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

সাংবাদিকদের ইমরান খান জানান, তিনি তার যুদ্ধের আশঙ্কার কথা ডোনাল্ড ট্রাম্প, অ্যাঙ্গেলা মেরকেল, ইমানুয়েল ম্যাক্রন ও বরিস জনসনের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। ট্রাম্প মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছেন, কিন্তু শর্ত হলো ভারত ও পাকিস্তান উভয় পক্ষকেই রাজি হতে হবে। কিন্তু ভারত ভিন্ন পক্ষের মধ্যস্থতার ব্যাপারে সব সময় চুপ থেকেছে এবং নরেন্দ্র মোদি সব সময় কাশ্মীরে জঙ্গিবাদের জন্য পাকিস্তানকে দোষারোপ করে আসছেন।

এদিকে ট্রাম্প-মোদির বেশ উষ্ণ সময় চলছে। এ সময় ইমরানের বিষয়টি ট্রাম্প কীভাবে দেখেন, সেটি খুব পরিষ্কার নয়। তবে ট্রাম্প ইমরানকে শুধু বলেছেন, ‘আমি আমার সর্বোচ্চটা চেষ্টা করব।’

উল্লেখ্য, ৫ আগস্ট ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল ঘোষণা করেছে, পাশাপাশি সেখানে নজিরবিহীন কড়াকড়ি আরোপ করেছে। স্বাভাবিক জনজীবন কোণঠাসা হয়ে পড়েছে।

আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর