ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • বুধবার   ১২ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৭ ১৪২৭

  • || ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
১৪৫

চার কারণে মধুর সম্পর্কেও বিচ্ছেদ ঘটে

আজকের ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ৮ এপ্রিল ২০২০  

ভালোবাসার কারণেই একে অপরের সঙ্গে মধুর সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তবে আজকাল বিচ্ছেদের অনেক গল্প শোনা যায়। অনেক মধুর  সম্পর্কও ঠুনকো কারণে ভেঙ্গে যায়। শুধু সাধারণ মানুষই নয়, অনেক বিখ্যাতদের মধ্যেও বিচ্ছেদ ঘটে থাকে।

সম্প্রতি এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, বেশিরভাগ দম্পতির মধ্যে বিয়ের আগে যতটা প্রেম ছিল বিয়ের পর তার সিংহভাগ থাকে না। কাজের চাপে যৌনজীবনের প্রতি অনীহা বাড়ে। এছাড়া ধৈর্য্য-সহ্যের অভাবে অল্পতেই সম্পর্কে বিচ্ছেদ ঘটে। এই প্রজন্মে বিচ্ছেদের ক্ষেত্রে চারটি মূল কারণ রয়েছে। চলুন জেনে নেয়া যাক সেগুলো-

ভালোবাসার অভাব

ডিভোর্সের ৪৭ শতাংশের মূল কারণ ভালোবাসার অভাব। বেশিরভাগ যুগলের মধ্যে এই অভাবটাই থাকে না। এরকম ক্ষেত্রে অনেকেই বিচ্ছেদের কারণে বলেন, স্বামীর বা স্ত্রীর প্রতি কারোর কোনো রকম ফিলিংস নেই। ফলে বছরের পর বছর এক ছাদের নিচে থাকা সম্ভব নয়।

সম্পর্কের প্রতি শ্রদ্ধা নেই

একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধাশীল না হলে, সহানুভূতি না থাকলে সেই সম্পর্কের জোর থাকে না। বিশেষজ্ঞদের মতে ভালোবাসার থেকেও জটিল এবং কঠিন হল সম্মান। এটি না থাকলে ঠুনকো জিনিসেই ঘটতে পারে বিচ্ছেদ।

মনের মিল

দুজন মানুষ কখনোই এক হয় না। কিন্তু নিজের মধ্যে কিছুটা সামঞ্জস্য অবশ্যই থাকা প্রয়োজন। যখন উভয়ের মধ্যে মনের মিলের বিস্তর ফারাক থাকে, তখন কোনো এক সময় তা রূপ নিতে পারে বিচ্ছেদে।

জেদ আর ভুল বোঝাবুঝি

৪৪ শতাংশ ডিভোর্স হয় নিজেদের জেদ আর ভুল বোঝাবুঝিতে। কেউ যখন পরস্পরের মুখোমুখি হয়ে কথা বলতে না চান বা নিজের জেদ ধরে বসে থাকেন, তখন সেই সমস্যা সমাধান হওয়ার নয়। দুজনেই দুজনের ভুল ধরতে ব্যস্ত থাকেন। শেষ পর্যন্ত ঘনিয়ে আসে বিচ্ছেদ।

লাইফস্টাইল বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর