ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’

শনিবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১২ ১৪২৬   ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
৯৪

গফরগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত সড়ক-সেতু পাল্টে দিচ্ছে চিত্র

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২ ডিসেম্বর ২০১৯  

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের প্রায় শতভাগ মানুষই রেলপথের ওপর নির্ভরশীল। নিতান্ত বিপাকে না পড়লে লোকজন সড়কপথে ঢাকা-ময়মনসিংহ বা অন্য কোথাও যাওয়া-আসার কথা চিন্তাও করে না। এ ছিল যুগ যুগান্তের চিত্র। কিন্তু এখন অবস্থা পাল্টে যাচ্ছে। চাতক পাখীর মতো আর ট্রেনের অপেক্ষায় স্টেশনে বসে থাকতে হবেনা। সড়ক পথে যে কোন সময় দ্রুত যেতে পারবে তারা। কারণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুত চারটি প্রধান সড়কের উন্নয়ন ও দুটি বড় সেতু নির্মাণ দীর্ঘদিনের এ চিত্র পাল্টে দিয়েছে। স্থানীয় সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেলের প্রচেষ্টায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুত একটি সেতুর নির্মাণ ও একটি সড়কের উন্নয়নকাজ ইতিমধ্যে সমাপ্ত হয়েছে। বাকি তিনটি প্রধান সড়কের উন্নয়ন কাজ দ্রুত চলছে।

জানা যায়, সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওতায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত বানার নদীর উপর একটি দৃষ্টিনন্দন সেতু নির্মাণ হওয়ায় পার্শ্ববর্তী কাপাসিয়া উপজেলার সাথে গফরগাঁওয়ের প্রত্যাশিত যোগাযোগ স্থাপিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত আভ্যন্তরীন কাঁজা-লংগাইর-শইলসাব সাড়ে পাঁচ কিলোমিটার সড়ক উন্নয়ন কাজ সমাপ্ত হয়েছে। এ ছাড়া সাড়ে ৩১ কিলোমিটার গফরগাঁও-ভালুকা সড়ক, সাড়ে ৪৬ কিলোমিটার গফরগাঁও-ময়মনসিংহ-ডাকবাংলো সড়ক ও ২৪ কিলোমিটার গফরগাঁও-বরমী-মাওনা সড়কের উন্নয়ন কাজ দ্রুত চলছে। এতে উপজেলাবাসীর দীর্ঘদিনের কষ্ট যেমন লাঘব হবে আবার পাল্টে যাবে যোগাযোগ ব্যবস্থার আমুল চিত্র।

নতুন রাস্তা নির্মিত হওয়ায় এখন লোকজন সড়ক পথে সহজে ও অল্প সময়ে ময়মনসিংহ, ভালুকা হয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহসহ দেশের যে কোনো স্থানে যেতে পারবেন। বানার নদীর ওপর সেতু নির্মাণ হওয়ায় কাপাসিয়া-গাজীপুর হয়ে ঢাকা এবং ব্রহ্মপুত্র খুরশিদ মহল সেতু পার হয়ে কিশোরগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করা যাবে। ব্রহ্মপুত্র খুরশিদ মহল সেতু ও পৌর শহরের পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদের উপর একটি বড় সেতু নির্মিত হওয়ায় পাশ্ববর্তী প্রায় ৮টি উপজেলার মানুষ গফরগাঁও ভায়া সড়ক ও রেলপথে যাতায়াত করছেন।

এ বিষয়ে গফরগাঁও আলতাফ গোলন্দাজ ডিগ্রি কলেজের রাষ্ট্র বিজ্ঞানের প্রভাষক গোলাম মোহাম্মদ ফারুকী বলেন, সড়ক পথগুলোর বেহাল দশার কারনে এক সময় উপজেলা সদরে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলে প্রত্যন্ত গ্রামের পরীক্ষার্থীরা কেন্দ্রের আশপাশে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন। কিন্তু প্রয়াত সংসদ সদস্য আলতাফ হোসেন গোলন্দাজ ও তার ছেলে বর্তমান সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেলের উদ্যোগে আভ্যন্তরীণ বড় রাস্তাগুলো পাকা করার কারণে উপজেলা সদরের সাথে প্রত্যন্ত গ্রামের যোগাযোগ চিত্র বদলে গেছে। গ্রামের মানুষ দ্রুত উপজেলা সদরে যাতায়াত করতে পারেন। বানার সেতু ও প্রধান সড়কগুলোর উন্নয়নের ফলে যোগাযোগ ব্যবস্থার চিত্র আমূল পাল্টে যাচ্ছে।

ময়মনসিংহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত গফরগাঁওয়ের তিনটি প্রধান সড়কের উন্নয়ন কাজ দ্রুত চলছে। কাজের মান যাতে ভাল হয় সে ব্যাপারে আমরা সজাগ রয়েছি।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল বলেন, গফরগাঁওয়ের মানুষ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে চিরকৃতজ্ঞ। আমার এলাকার মানুষ মনে প্রাণে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ধারণ করেন। তারা বারবার নৌকায় ভোট দিয়ে এ আসনটি আওয়ামী লীগকে উপহার দিয়েছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও গফরগাঁওয়ের মানুষকে দুই হাত উজাড় করে সড়ক-সেতুসহ বিভিন্ন উন্নয়ন উপহার দিয়েছেন। এ জন্যই আমার প্রয়াত বাবা আলতাফ হোসেন গোলন্দাজের তিন বার ও আমার দুই বারের সংসদ সদস্য থাকা অবস্থায় গফরগাঁওয়ের ব্যাপক উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে।

আজকের ময়মনসিংহ
আজকের ময়মনসিংহ
এই বিভাগের আরো খবর