ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’

মঙ্গলবার   ২২ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৬ ১৪২৬   ২২ সফর ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
১০৩৬

কোন উপজেলা নির্বাচন কবে!

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৪ জানুয়ারি ২০১৯  

মেয়াদ অনুসারে ৫ ধাপে অনুষ্ঠিত হবে এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। প্রথম ধাপের ভোট হবে আগামী ৮ অথবা ৯ মার্চ। আর দ্বিতীয় থেকে পরবর্তী ধাপে ভোট হবে ঈদের পর। সাতদিন পরপর এসব ধাপের ভোট নেয়া হবে।

আগামী ২১ মার্চের মধ্যে যেসব উপজেলা পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে সেগুলো ৮ বা ৯ মার্চ প্রথম ধাপে, ২৬ মার্চের মধ্যে যেগুলোর মেয়াদ শেষ হবে সেগুলো ১৮ মার্চ দ্বিতীয় ধাপে, ৩০ মার্চের মধ্যে মেয়াদ শেষ হবে এমন উপজেলাগুলো ২৪ মার্চ তৃতীয় ধাপে এবং ১৯ জুনের আগে যেগুলোর মেয়াদ শেষ হবে সেগুলো ৩১ মার্চ চতুর্থ ধাপে ভোট গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়েছে। অবশিষ্ট উপজেলাগুলোর নির্বাচন হবে পঞ্চম ধাপে।

মোট ৪৯২টি উপজেলা পরিষদের মধ্যে অন্তত ৪৬০টিতে নির্বাচন অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা রয়েছে কমিশনের।

এরইমধ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের জন্য ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তারিখ, নির্বাচিতদের শপথ গ্রহণ এবং পরিষদের প্রথম সভার তারিখের তথ্য সংগ্রহ করেছে কমিশন। সে তথ্য অনুসারে পাঁচটি ধাপে নির্বাচন যোগ্য উপজেলাগুলোকেও চিহ্নিত করা হয়েছে। তবে প্রস্তুত করা তালিকায় কিছু উপজেলা যোগ ও বিয়োগ হতে পারে। আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন কমিশন এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।

প্রথম ধাপ

৮ ও ৯ মার্চ প্রথম ধাপের নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের আটটি জেলার ৬৯ উপজেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

রংপুর বিভাগের পঞ্চগড় জেলার সদর, আটোয়ারি, বোদা, দেবীগঞ্জ ও তেঁতুলিয়া। দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ, কাহারোল, বিরল, বোচাগঞ্জ, সদর, খানসামা, চিরিরবন্দর, পার্বতীপুর, ফুলবাড়ী, নবাবগঞ্জ, বিরামপুর, হাকিমপুর ও ঘোড়াঘাট। নীলফামারী জেলার ডোমার, ডিমলা, সদর, জলঢাকা, সৈয়দপুর ও কিশোরগঞ্জ, কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গমারী, ফুলবাড়ী, উলিপুর, নাগেশ্বরী, রাজারহাট, রাজিবপুর, সদর, চিলমারী ও রৌমারী।

ময়মনসিংহ বিভাগের জামালপুর জেলার সদর, সরিষাবাড়ী, মেলান্দহ, ইসলামপুর, বকশীগঞ্জ, দেওয়ানগঞ্জ ও মাদারগঞ্জ। নেত্রকোনা জেলার বারহাট্টা, দুর্গাপুর, খালিয়াজুরী, কলমাকান্দা, কেন্দয়া, মদন, মোহনগঞ্জ, পূর্বধলা ও সদর।

সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক, দোয়ারাবাজার, সদর, জামালগঞ্জ, শাল্লা, ধর্মপাশা, বিশ্বম্ভরপুর, তাহিরপুর ও জগন্নাথপুর। হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল, মাধবপুর, চুনারুঘাট, সদর, নবীগঞ্জ, আজমিরীগঞ্জ, বানিয়াচং ও শায়েস্তাগঞ্জ।

এই ৬৯টি উপজেলার সঙ্গে চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যান পদশূন্য হয়েছে অথবা পদত্যাগ করেছে এমন উপজেলা পরিষদগুলোর নির্বাচনও প্রথম ধাপের সঙ্গে করার পরিকল্পনা রয়েছে কমিশনের। একাদশ জাতীয় সংসদ সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে গিয়ে বেশ কিছু উপজেলার চেয়ারম্যান পদত্যাগ করেন। তাদের পদত্যাগপত্র সে সময় না হলেও পরে গ্রহণ করা হয়েছে।

যেসব উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানরা পদত্যাগ করেছেন সেগুলো হচ্ছে- পিরোজপুরের মঠবাড়ীয়া, ঢাকার নবাবগঞ্জ ও ধামরাই, সিরাজগঞ্জের চৌহালী ও রায়গঞ্জ, জয়পুরহাট সদর, রাজশাহীর চারঘাট, যশোর সদর, বগুড়ার গহাবতলী ও শাহজাহানপুর, গাইবান্ধার সাঘাটা, মানিকগঞ্জ সদর, খাগড়াছড়ির রামগড়, কুষ্টিয়া সদর, মানিকগঞ্জের সিংগাইর, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ ও গোবিন্দগঞ্জ, ময়মনসিংহের গৌরিপুর, রংপুরের গংগাচড়া ও মিঠাপুকুর, নারায়ণগঞ্জের সেনারগাঁ, ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ড, শেরপুরের নালিতাবাড়ী, নেত্রকোনার কেন্দুয়া, জামালপুরের সরিষাবাড়ী, চট্টগ্রামের মিরসরাই, নাটোরের গুরুদাসপুর, ময়মনসিংহের ত্রিশাল ও ঈশ্বরগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া এবং সুনামগঞ্জের সদর।

দ্বিতীয় ধাপ

১৮ মার্চ দ্বিতীয় ধাপে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য যে ১২৫টি উপজেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

রাজশাহী বিভাগের বগুড়া জেলার সদর, আদমদীঘি, দুপচাঁচিয়া, ধুনট, কাহালু, গাবতলী, নন্দীগ্রাম, সারিয়াকান্দি, শাজাহানপুর, শেরপুর ও সোনাতলা। নওগাঁ জেলার রাণীনগর, মহাদেবপুর, নিয়ামতপুর, সাপাহার, পত্নীতলা, বদলগাছী, সদর, আত্রাই, পোরশা, ধামাইরহাট ও মান্দা। নাটোর জেলার সদর, বাগাতিপাড়া, গুরুদাসপুর, বড়াইগ্রাম, লালপুর ও সিংড়া। সিরাজগঞ্জ জেলার সদর, বেলকুচি, চৌহালী, কামারখন্দ, কাজীপুর, রায়গঞ্জ, শাহজাদপুর, তাড়াশ ও উল্লাপাড়া।

খুলনা বিভাগের কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা, কুমারখালী, মিরপুর, খোকসা ও দৌলতপুর। ঝিনাইদহ জেলার সদর, শৈলকুপা, হরিণাকুন্ড ও কালীগঞ্জ। যশোর জেলার শার্শা, ঝিকরগাছা, চৌগাছা, সদর, বাঘারপাড়া, অভয়নগর, মনিরামপুর ও কেশবপুর। খুলনা জেলার দিঘলিয়া, কয়রা, ডুমুরিয়া, পাইকগাছা, রূপসা, তেরখাদা, ফুলতলা, বাটিয়াঘাটা ও দাকোপ। মেহেরপুর জেলার সদর, মুজিবনগর ও গাংনী।

চট্টগ্রাম বিভাগের নোয়াখালী জেলার চাটখিল, সেনবাগ, কোম্পানীগঞ্জ, কবিরহাট, সুবর্ণচর ও হাতিয়া। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর, আশুগঞ্জ, সরাইল, সদর, বিজয়নগর, আখাউড়া, কসবা ও নবীনগর। কুমিল্লা জেলার মেঘনা, হোমনা, তিতাস, মুরাদনগর, দেবিদ্বার, বুড়িচং, ব্রাহ্মণপাড়া, চান্দিনা, আদর্শ সদর, বরুড়া, সদর দক্ষিণ, লাকসাম, নাঙ্গলকোট, মনোহরগঞ্জ, চৌদ্দগ্রাম। চাঁদপুর জেলার কচুয়া, মতলব উত্তর, মতলব দক্ষিণ, সদর, ফরিদগঞ্জ, হাজীগঞ্জ ও শাহরাস্তি। চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই, সীতাকুণ্ড, সন্দ্বীপ, ফটিকছড়ি, রাঙ্গুনিয়া, রাউজান, হাটহাজারী, বোয়ালখালী, পটিয়া, আনোয়ারা, চন্দনাইশ, লোহাগড়া ও বাঁশখালী। খাগড়াছড়ি জেলার সদর, মহালছড়ি, পানছড়ি, মাটিরাঙ্গা, রামগড়, মানিকছড়ি, লক্ষ্মীছড়ি ও দীঘিনালা।

তৃতীয় ধাপ

২৪ মার্চ তৃতীয় ধাপে নির্বাচনের জন্য খুলনা, রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের ১৭টি জেলার যে ১১১টি উপজেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

খুলনা বিভাগের চুয়াডাঙ্গা জেলার সদর, আলমডাঙ্গা, দামুড়হুদা ও জীবননগর। মাগুড়া জেলার সদর, শ্রীপুর, শালিখা ও মহম্মদপুর। নড়াইল জেলার সদর, কালিয়া ও লোহাগড়া। বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট, মোল্লাহাট, চিতলমারী, সদর, কচুয়া, রামপাল, মোংলা, মোরেলগঞ্জ ও শরণখোলা। সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি, শ্যামনগর, কালীগঞ্জ, কলারোয়া, সদর, তালা ও দেবহাটা।

রংপুর বিভাগের ঠাকুরগাঁও জেলার সদর, বালিয়াডাঙ্গী, রাণীশংকৈল, পীরগঞ্জ ও হরিপুর। লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম, হাতীবান্ধা, সদর, কালীগঞ্জ ও আদিতমারী। রংপুর জেলার সদর, গংগাচড়া, তারাগঞ্জ, বদরগঞ্জ, কাউনিয়া, পীরগাছা ও পীরগঞ্জ। গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ, সাঘাটা, পলাশবাড়ী, গাইবান্ধা সদর, সাদুল্লাপুর ও ফুলছড়ি।

রাজশাহী বিভাগের জয়পুরহাট জেলার সদর, পাঁচবিবি, আক্কেলপুর, কলাই ও ক্ষেতলাল। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাট, গোমস্তাপুর, নাচোল ও শিবগঞ্জ। রাজশাহী জেলার তানোর, গোদাগাড়ী, পবা, মোহনপুর, বাগমারা, পুটিয়া, দুর্গাপুর, চারঘাট ও বাঘা। পাবনা জেলার পাবনা সদর, আটঘরিয়া, বেড়া, ভাঙগুড়া, চাটমোহর, ফরিদপুর, ঈশ্বরদী, সাঁথিয়া ও সুজানগর।

ময়মনসিংহ বিভাগের শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ী, শ্রীবর্দী ও ঝিনাইগাতী। ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট, ধোবাউড়া, ফুলপুর, গৌরীপুর, ময়মনসিংহ সদর, মুক্তাগাছা, ফুলবাড়ীয়া, ত্রিশাল, ঈশ্বরগঞ্জ, নান্দাইল, গফরগাঁও ও ভালুকা।

সিলেট বিভাগের সিলেট জেলার সিলেট সদর, বিশ্বনাথ, দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ, বালাগঞ্জ, কোম্পানীগঞ্জ, গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর, কানাইঘাট, জকিগঞ্জ, গোপালগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার। মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা, জুড়ী, কুলাউড়া, রাজনগর, মৌলভীবাজার সদর, কমলগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গল।

চতুর্থ ধাপ

৩১ মার্চ চতুর্থ ধাপের নির্বাচনের জন্য বরিশাল, ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের ২৪টি জেলার ১৫৯টি উপজেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

বরিশাল বিভাগের বরিশাল জেলার সদর, বাকেরগঞ্জ, বাবুগঞ্জ, বানারীপাড়া, উজিরপুর, গৌড়নদী, আগৈলঝাড়া, মুলাদী ও হিজলা। পটুয়াখালী জেলার পটুয়াখালী সদর, মির্জাগঞ্জ, দুমকী, বাউফল, দশমিনা, গলাচিপা ও কলাপাড়া। ভোলা জেলার ভোলা সদর, দৌলতখান, বোরহানউদ্দিন, লালমোহন, তজুমদ্দিন, চরফ্যাশন ও মনপুরা। বরগুনা জেলার বরগুনা সদর, আমতলী, বেতাগী, বামনা ও পাথরঘাটা। পিরোজপুর জেলার পিরোজপুর সদর, ইন্দুরকানী, মঠবাড়িয়া, ভান্ডারিয়া, কাউখালী, নেছারাবাদ ও নাজিরপুর। ঝালকাঠী জেলার ঝালকাঠী সদর, নলছিটি, রাজাপুর ও কাঠালিয়া।

ঢাকা বিভাগের টাঙ্গাইল জেলার ধনবাড়ী, মধুপুর, গোপালপুর, ভূঞাপুর, ঘাটাইল, কালিহাতি, টাঙ্গাইল সদর, দেলদুয়ার, নাগরপুর, মির্জাপুর, বাসাইল ও সখিপুর। কিশোরগঞ্জ জেলার সদর, হোসেনপুর, কটিয়াদী, পাকুন্দিয়া, তাড়াইল, করিমগঞ্জ, ইটনা, মিঠামইন, অষ্টগ্রাম, নিকলী, বাজিতপুর, কুলিয়ারচর ও ভৈরব। ঢাকা জেলার দোহার, নবাবগঞ্জ, কেরানীগঞ্জ, সাভার ও ধামরাই। গাজীপুর জেলার কাপাশিয়া, কালিয়াকৈর, শ্রীপুর ও কালীগঞ্জ। মুন্সিগঞ্জ জেলার সদর, টঙ্গিবাড়ী, লৌহজং, শ্রীনগর, সিরাজদিখান ও গজারিয়া। নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও, আড়াইহাজার ও রূপগঞ্জ। নরসিংদী জেলার সদর, পলাশ, শিবপুর, মনোহরদী, বেলাব ও রায়পুরা। মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর, ঘিওর, শিবালয়, সিঙ্গাইর, হরিরামপুর, মানিকগঞ্জ সদর ও সাটুরিয়া। ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী, মধুখালী, নগরকান্দা, সালথা, ফরিদপুর সদর, চরভদ্রাসন, সদরপুর ও ভাঙ্গা। রাজবাড়ী জেলার সদর, গোয়ালন্দ, পাংশা, কালুখালী ও বালিয়াকান্দী। গোপালগঞ্জ জেলার সদর, টুঙ্গীপাড়া, কোটালীপাড়া, কাশিয়ানী ও মুকসুদপুর। মাদারীপুর জেলার শিবচর, কালকিনি ও রাজৈর। শরীয়তপুর জেলার সদর, জাজিরা, নড়িয়া, ভেদরগঞ্জ, ডামুড্যা ও গোসাইরহাট।

চট্টগ্রাম বিভাগের ফেনী জেলার সদর, দাগনভূঁঞা, সোনাগাজী, ফুলগাজী, ছাগলনাইয়া ও পরশুরাম। লক্ষ্মীপুর জেলার সদর, রামগঞ্জ, রায়পুর, কমলনগর ও রামগতি। বান্দরবান জেলার সদর, রোয়াংছড়ি, রুমা, থানচি, লামা, আলীকদম ও নাইক্ষ্যংছড়ি। রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি, লংগদু, নানিয়ারচর, বরকল, জুরাছড়ি, সদর, কাউখালী, কাপ্তাই, রাজস্থলী ও বিলাইছড়ি। কক্সবাজার জেলার চকরিয়া, পেকুয়া, কুতুবদিয়া, মহেশখালী, কক্সবাজার সদর, রামু, উখিয়া ও টেকনাফ।

পঞ্চম ধাপ

রমজানের পর পঞ্চম ধাপের নির্বাচনের জন্য যে ১৭টি উপজেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে সেগুলো হলো— নেত্রকোনার আটপাড়া, শেরপুরের সদর ও নকলা, নাটোরের নলডাঙ্গা, চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর, বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ, পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী, বরগুনার তালতলী, ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর ও মহেশপুর, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ, গাজীপুরের সদর, নারায়ণগঞ্জের বন্দর, মাদারীপুরের সদর, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর, চাঁদপুরের হাইমচর ও চট্টগ্রামের সাতকানিয়া।

আজকের ময়মনসিংহ
আজকের ময়মনসিংহ
এই বিভাগের আরো খবর