ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • বুধবার   ১২ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৮ ১৪২৭

  • || ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
৮৯

এলকো কেবলস উদ্বোধন করলেন রূপালী ব্যাংকের এমডি

আজকের ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ৭ ডিসেম্বর ২০১৯  

সম্পূর্ণ আধুনিক সুবিধা নিয়ে চালু হলো এলকো ওয়্যারস অ্যান্ড কেবলস লিমিটেড। গাজীপুরের শ্রীপুরে প্রতিষ্ঠিত এলকো কেবলসে অর্থায়ন করেছে রূপালী ব্যাংক লিমিটেড।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন- এলকো কেবলসের চেয়ারম্যান রনদীপ দাসগুপ্ত, ম্যানেজিং ডিরেক্টর তারেক মাহমুদ, রূপালী ব্যাংকের জিএম শফিকুল ইসলাম, আবদুর রহিমসহ ব্যাংক ও এলকো কেবলসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মো. ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ বলেন, ‘দেশের উন্নয়নে তরুণদেরও এগিয়ে আসতে হবে। দেশের উন্নয়নে তরুণ সমাজের ভূমিকা সবসময়ই উল্লেখযোগ্য। দেশের উন্নয়নে এবং এ দেশের ব্যবসায়ীদের উন্নয়নে রূপালী ব্যাংক কাজ করে যাচ্ছে। ভবিষ্যতেও দেশের উন্নয়নে ব্যবসায়ীদের পাশে আমরা থাকবো।’

তিনি বলেন, ‘বাকিতে মাল বিক্রির ফলে অনেক সময় ব্যবসায় লোকসান হয়, ফলে শুধু খেলাপী ঋণ নিয়ে কথা বললেই হবে না। হাজার হাজার ব্যবসায়ী বিলীন হয়ে যাচ্ছে শুধু বাকিতে মাল বিক্রির কারণে। কারণ বাকিতে পণ্য নেওয়ার পরে অর্থ ফেরত না দিলে তাদেরকে আইনের ফাঁক-ফোঁকরের কারণে ধরা যায় না। বাকি বা ট্রেড ক্রেডিট থেকে বের হওয়ার জন্য এ নিয়ে ভাবতে হবে। এই সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য ব্যবসায়ীদের  ‘‘চেইন ল্যান্ডিং’’ নামে আমরা রুপালী ব্যাংক নতুন প্রোডাক্ট নিয়ে আসছি। এই প্রোডাক্টের মাধ্যমে ট্রেড ক্রেডিটের সমস্যা অনেকটাই সমাধান হবে।’

ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ আরও বলেন, ‘সারা বিশ্বে এ পর্যন্ত ৮৫ শতাংশ অগ্নিকাণ্ড হয়েছে শর্ট সার্কিটের কারণে। আর শর্ট সাকির্টের বেশিরভাগই হয়ে থাকে কেবলসের গুণগত মানের দিক থেকে দুর্বল বলে। সেক্ষেত্রে আমি মনে করি এলকো কেবলস গুণগতমান বজায় রেখে বাজারজাত করবে। কারণ আমি নিজে এই প্রতিষ্ঠানের পণ্য উৎপাদনের বিভিন্ন প্রযুক্তি নিজের চোখে ঘুরে দেখেছি। তাছাড়া এই কোম্পানি যদি মার্কেটের ১০ শতাংশ শেয়ার দখলে নিতে পারে তাহলে এই কোম্পানি অনেক দূর সফলতা অর্জন করতে পারবে।’

অনুষ্ঠানে কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানো হয়, যাত্রা শুরুর তিন বছরের মধ্যেই ৭ হাজার ৩০০ কোটি টাকার কেবলসের বাজারের ১৫ শতাংশ দখলের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। ৩১২ শতাংশ জমির উপর স্থাপিত প্রকল্পটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৭৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ব রূপালী ব্যাংক ৩৫ কোটি টাকা অর্থায়ন করেছে।