ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিববঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • শুক্রবার   ০৭ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৩ ১৪২৭

  • || ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

আজকের ময়মনসিংহ
৫০

আমিরে বিধ্বস্ত রাজশাহী, ফাইনালে খুলনা

আজকের ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০২০  

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের প্রথম দল হিসেবে ফাইনালে উঠে গেছে মুশফিকুর রহিমের খুলনা টাইগার্স। মিরপুরে প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে রাজশাহীকে ২৭ রানে হারিয়েছে খুলনা। 
টস আগে ব্যাট করতে নেমে নাজমুল হোসেন শান্তর অর্ধশতকে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রান তোলে খুলনা। জবাবে শোয়েব মালিকের লড়াইয়ের পরও ২০ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৩১ রান তুলতে পারে রাজশাহী।  
১৫৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা রাজশাহীকে শুরুতেই বিপদে ফেলে দেন খুলনার পাকিস্তানী পেসার মোহাম্মদ আমির। দলীয় ২২ রানের মধ্যে টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান লিটন দাস (২), আফিফ হোসেন (১১) ও অলোক কাপালিকে প্যাভিলিয়নে পাঠান আমির। এরপর দ্রুতই ফিরে যান রবি বোপারা (১), আন্দ্রে রাসেল (০) ও ফরহাদ রেজা (৩)।

৩৩ রানের ছয় উইকেট হারানো রাজশাহীকে আলোর দিশা দেখান শোয়েব মালিক। সপ্তম উইকেট জুটিতে তাইজুল ইসলামকে সঙ্গে নিয়ে ৭৪ রানের জুটি গড়েন মালিক। তুলে নেন অর্ধশতক। ২৩ বলে ১২ রান করা তাইজুলকেও সাজঘরে ফেরান সেই আমির।

শোয়েব মালিক ৫০ বলে ৮০ রানের দুর্দান্ত একটি ইনিংস উপহার দিলেও দলের জয়ের জন্য তা যথেষ্ট হয়নি। শেষ পর্যন্ত ১৩১ রানে শেষ হয় রাজশাহীর লড়াই। 

খুলনার হয়ে ১৭ রান খরচায় ৬ উইকেট তুলে নিয়ে রাজশাহীকে একাই ধসিয়ে দেন মোহাম্মদ আমির। 

এর আগে, টস হেরে খুলনাকে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান রাজশাহীর অধিনায়ক আন্দ্রে রাসেল। দলীয় ১৫ রানের মাথায় মেহেদী হাসান মিরাজ (৮) ও রাইলি রুশোকে (০) হারিয়ে ব্যাকফুটে চলে যায় খুলনা। 


 
সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত ও শামসুর রহমান শুভ। তৃতীয় উইকেটে ৭৮ রান তোলেন তারা। ৩১ বলে ৩২ রান করা শুভকে ফিরিয়ে সে জুটি ভাঙেন রবি বোপারা। 

একপ্রান্ত আগলে রেখে আক্রমণ অব্যাহত রাখেন শান্ত। তার সঙ্গে যুক্ত হন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। তাদের ব্যাটে গতি পায় খুলনা। অর্ধশতক তুলে নেন শান্ত। দলীয় ১৩৫ রানের মাথায় মুশফিক রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে ফিরে গেলে ধাক্কা খায় খুলনা। ১৬ বলে ২১ রান করেন মুশফিক। 

শান্তর অপরাজিত ৭৮ রানের উপর ভর করে শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর দাঁড় করায় খুলনা টাইগার্স। ৫৭ বলের ইনিংসে ৭টি চার ও ৪টি ছক্কা হাঁকান শান্ত। অপরপ্রান্তে নাজিবুল্লাহ জাদরান ৫ বলে করেন ১২ রান। 

রাজশাহীর সফলতম বোলার মোহাম্মদ ইরফান চার ওভারে এক মেডেনসহ ১৩ খরচায় নেন দুই উইকেট।

এই জয়ে সরাসরি ফাইনালে উঠে গেলো খুলনা। অপরদিকে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে বুধবার চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে মাঠে নামবে রাজশাহী। 

খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর